শিশুদের আন্তর্জাতিক অঙ্কন প্রতিযোগিতা 2018
ক্লিন্টের স্মৃতির উদ্দেশ্যে
Picture of Edmund Thomas Clint

এডমন্ড থমাস ক্লিন্ট


কেরলের কোচিতে, বসবাসকারী শ্রী এম. টি. জোসেফ এবং চিন্নাম্মা জোশেফের একমাত্র সন্তান ছিল এডমন্ড থমাস ক্লিন্ট। দীর্ঘ রোগভোগের কারণে তার কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হওয়াতে তাঁর জীবন কাল মাত্র 2522 দিনের জন্য ছিল।কিন্ত অতি অল্প বয়স থেকেই সে ড্রয়িং এবং পেইন্টিংস-এ অসাধারণ দক্ষতা প্রদর্শন করেছিল।.

ক্লিন্ট যে জগতকে প্রতক্ষ্য করেছিল তাকে চিত্রিত করার জন্য সে তার ড্রয়িং এবং পেইন্টিং-এ চক,ক্রেয়ন,তেল রঙ এবং জল রঙ সহ সমস্ত রকমের মাধ্যম ব্যবহার করেছিল।তার শিল্পুকর্মের সংগ্রহ চিত্রকলা রসিক এবং সমালোচকদের অভিভূত করেছিল এবং তারা তার পরিপূর্ণতায় অভিভূত হয়েছিলেন ও তার শৈল্পিক প্রতিভার প্রতি নিঃসন্দিহান হয়েছিলেন।

ক্লিন্ট তার শিল্পকর্মের ধনসম্ভারকে ফেলে রেখে তার সপ্তম জন্মদিনের একমাস আগে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে।মানুষ কি ভাবে অনুভব করে সেটি বোঝার এক অনন্য ক্ষমতা ক্লিন্টের ছিল, এবং সেই সকল ক্ষমতাশালী আবেগের প্রেরণার থেকে সে ছবি আঁকত। অল্প বয়স হওয়া সত্বেও ক্লিন্ট সেই সব ছবি অঙ্কন করেছে যার মধ্যে দিয়ে মৃত্য, নিঃসঙ্গতা এবং ভালোবাসার মত গভীর প্রসঙ্গগুলি চিত্রিত হয়েছে। একজন শিল্পি হবার সাথেসাথে ক্লিন্ট একজন অতি উৎসাহী পাঠকও ছিল। ক্লিন্ট, রামায়ণ এবং মহাভারতের মত মহাকাব্যের নাটকীয় মুহুর্তগুলিকে চিত্রিত করেছিল এবং রবিনসন ক্রুশোর মত দুঃসাহসিক অভিযানের গল্প শোনায় তার খুব আগ্রহ ছিল।এই সমস্ত গল্পের সমস্ত খুটিনাটি বর্ণনাকে তার স্মৃতিতে ধরে রেখেছিল এবং তারপরে সেগুলিকে সে তার শিল্পকর্মের মাধ্যমে ব্যক্ত করেছিল।

Girls picking flowers
Kathakali
Raavanan
Pooram
Snake Boat
Theyyam
Sunset
Kavadi Festival
Village Temple Festival

ক্লিন্টের বাবা বিখ্যাত হলিউড অভিনেতা ক্লিন্ট ঈষ্টঊড, এর প্রচন্ড ভক্ত ছিলেন এবং তার নামের সাথে মিলিয়ে ক্লিন্টের নামকরণ করেছিলেন। ক্লিন্টের মৃত্যুর পরে ভারতের একজন বিখ্যাত তথ্যচিত্র নির্মাতা শ্রী শিবকুমার, শিশু শিল্পীর জীবন এবং তার কাজ নিয়ে একটি তথ্যচিত্র নির্মাণ করেন।তথ্যচিত্রটি ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হয় এবং সম্ভবত অভিনেতা ক্লিন্ট ঈষ্টউড তথ্যচিত্রটি দেখে ছিলেন। ক্লিন্টের জীবনী আওভিনেতাকে এতটাই ছুঁইয়ে গিয়েছিল যে তিনি ক্লিন্টের বাবা মাকে এই শিশুর অসময়োচিত তিরোধানের জন্য গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বার্তা পাঠিয়ে ছিলেন।